অজিদের, বক্সিং ডে টেস্টে হারিয়ে সিরিজে সমতা ফেরালো ভারতীয় দল

 

রাজ্যসংবাদঃ  অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে ভারতের বড় জয়। প্রথম টেস্ট ম্যাচ অ্যাডিলেড ওভালে কোহলির নেতৃত্বে লজ্জাজনক হারের পর মেলবোর্নের গৌরব জয় উপহার অজিঙ্কা রাহানের ভারতের। আজ বক্সিং ডে টেস্ট অস্ট্রেলিয়াকে ৮ উইকেটে হারালো টিম ইন্ডিয়া। এই জয় দিয়েই পিঙ্ক বল টেস্ট হারের বদলা নিল ভারত। সেইসঙ্গে ৪ টেস্ট সিরিজ(১-১) সমতা ফেরালো টিম ইন্ডিয়া। এই টেস্টের ম্যাচের সেরা হলো ক্যাপ্টেন অজিঙ্কা রাহানে।

এই ম্যাচ জয়ের পর টানা দুটি বক্সিং ডে টেস্ট জয় ভারতের। এর আগে ২০১৮-১৯ মৌসুমী ক্যাপ্টেন বিরাট কোহলির নেতৃত্বে প্রথমবার বক্সিং ডে টেস্ট জয়লাভ করেছিল ভারত। তারপর টানা দু’বছর পর রাহানের নেতৃত্বে বক্সিং ডে টেস্ট দুরন্ত জয় পেল টিম ইন্ডিয়া ক্যাপ্টেন খানের নেতৃত্বে।

এই মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন না ভারতীয় অধিনায়ক বিরাট কোহলি। কোহলি না থাকায় এই টেস্টে নেতৃত্ব করছিলেন অজিঙ্কা রাহানে। এই ম্যাচের মধ্যে ক্যাপ্টেন রাহানে ফিল্ডিং সাজানো থেকে শুরু করে ব্যাটিং সবদিক থেকে ফুল মার্কস পেয়ে পাশ করলেন বছর ৩২ এর এই মারাঠি খেলোয়ার।

অ্যাডিলেডে ঐতিহাসিক আহারের পর মেলবন বক্সিং টেস্টে ঐতিহাসিক জয়লাভ করে ভারত। এইতো এরপরেই সিরিজে সমতা ফেরায় ভারত। এই ম্যাচ জয়ের মাধ্যমে মাত্র তিন দিনের ব্যবধানেই অজিদের হারিয়ে সিরিজে সমতা ফেরায় রাহানে এন্ড কোং। অস্ট্রেলিয়া দ্বিতীয় ইনিংস শেষ হওয়ার পর ভারতের জয়ের জন্য দরকার ছিল শুধু মাত্র ৭০ রানের। এরপর ভারতীয় টিম ব্যাট করতে নেমে মাত্র ২ উইকেটে এই লক্ষ্য অর্জন করেও ম্যাচ এ জয়লাভ করে । প্রথম ইনিংসে ১১২ রানের দুরন্ত সেঞ্চুরির পর দ্বিতীয় ইনিংসে ২৭ রানে অপরাজিত থাকেন ভারতীয় ক্যাপ্টেন রাহানে। এদিন জ্যৈষ্ঠ মাসে ভারতীয় ক্যাপ্টেনের থেকে।

৬ উইকেটে ১৩৩ রান হাতে নিয়ে চতুর্থ দিন সকালে খেলা শুরু করে অস্ট্রেলিয়া। এদিন সকালে অপরাজিত অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটম্যান ক্যামেরণ গ্রীন ও প্যাট কামিন্স তৃতীয়দিন অন্তিম শয়ানে ভারতীয় বোলারদের সামনে অসীম ধৈর্য নিয়ে খেলা শেষ করে ও চতুর্থ দিনের ম্যাচেও প্রথম উইকেট নিতে কিছুটা সময় লাগে ভারতীয় বোলারদের। অবশেষে সপ্তম উইকেটে গ্রীন এর সঙ্গে ৫৭ রান যোগ করে বুমরার বাউন্সারে ঠকে যান কামিন্স । এদিন ১০৩ বল খেলে ২২ রান করে প্যাভিলিয়নে ফেরেন অস্ট্রেলিয়ান এই প্রেসার।

এরপর ১৭৭ রানের মাথায় সিরিজের ডেলিভারিতে জাদেজার হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন গ্রীন। এদিন ১৪৬ খেলে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যক্তিগত সর্বাধিক ৪৫ রান করেন গ্রীন। এরপর বাকি ২ উইকেট তোলার জন্য ভারতীয় বোলারদের বেশি সময় নষ্ট করতে হয়নি। কিছুতেই রেজাল্টের বোর্ড করে ইনিংস শেষ করেন অস্মিন।

ভারত প্রথম ইনিংসেই ১৩৩ রানে এগিয়ে থাকায় সিরিজে সমতা ফেরানোর লক্ষ্যে জয়ের জন্য দরকার ছিল মাত্র ৭০ রান। তবে এদিন ক্যাপ্টেন রাহানে প্রথম টেষ্টের ৩৬ রানের বিপর্যয়ের কথা মাথায় রেখে সতর্ক ছিলেন ব্যাটসম্যানরা। তারপর ১৯ রানে ২ উইকেট হারানোর পর ক্যাপ্টেন রাহানে ও ওপেনিং ব্যাটসম্যান শুভমন গিল এর অবিভক্ত হাফসেঞ্চুরি পার্টনারশিপে হাসতে হাসতে বক্সিং ডে টেস্ট জয় লাভ করে ভারতীয় টিম।