অর্থনৈতিক চাঙ্গা করতে ফ্লাটের কেনাবেচায় ছাড় আয়কর দপ্তরের

বর্তমান পরিস্থিতিতে অর্থনীতি চাঙ্গা করার জন্য বৃহস্পতিবার আমাদের দেশের অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন এর তৃতীয় দফার ছাড়ের ক্ষেত্রে দেশের আবাসন শিল্প কিছুটা হলেও স্বস্তি পেয়েছে| দ্বিতীয় দফার ছাড়ের ক্ষেত্রে তিনি নতুন গাড়ি কেনাবেচার জন্য দু’পক্ষকেই বিশেষ সুবিধা প্রদান করেছেন| তিনি নতুন যারা বাড়ি কিনবেন বা বেচবেন সে ক্ষেত্রে আয়কর কে যে কর দেওয়া হতো সেই সব নিয়ম বিধির মধ্যে কিছুটা শিথিলতা এনেছেন যাতে আবাসনশিল্পের ছাড় দিয়ে বর্তমানে অর্থনীতিকে চাঙ্গা করা যায়| এছাড়াও তিনি প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার অন্তর্গত যেসব আদান-প্রদান করা সবক্ষেত্রে বরাদ্দ ৮ হাজার কোটি টাকা থেকে বৃদ্ধি করে ১৮ হাজার কোটি টাকা মঞ্জুর করেছেন|

এর ফলে আবাসন শিল্প অনেকটাই খুশি, তারা মনে করছে যে অনেকটাই নতুন আবাসনের চাহিদা বাড়বে, যা অর্থনীতি চাঙ্গা করতে অনেকটাই সহযোগী হবে বলে মনে করা হচ্ছে| তবে অনেকাংশ মনে করছে যে এর ফলে কিছুটা সুবিধা হলেও আরো কিছু বিষয়ের উপরে আয়কর দপ্তর ছাড় দেওয়া উচিত | তবে কারো মতে আবার এলাকার ভিত্তিকভাবে যদি এই ছাড় দেওয়া হতো তবে তা আরও প্রভাবশালী হলো বলে মনে করা হচ্ছে| তবে মোটের উপর মনে করা হচ্ছে যে এই ছাড় এর ফলে অনেকটাই লাভবান হবেন আবাসন শিল্প|

দীর্ঘদিন ধরে আবাসনের চাহিদা না থাকার কারণে অনেক ডেভলপারের নগদ অর্থ ফুরিয়ে গেছে বলে মনে করা হচ্ছে| তাই অর্থমন্ত্রীর এমন এমন পদক্ষেপের ফলে অতীতের তৈরি অনেক ফ্ল্যাট পুনরায় বিক্রি করা যাবে বলে মনে করছেন আবাসন শিল্প সংগঠনের চেয়ারম্যান যে শাহ| তিনি বলেন এর ফলে জনসাধারণ পুনরায় ফ্ল্যাট কেনার জন্য উৎসাহিত হবেন| যা আবাসন শিল্প তথা সরকারের আর্থিক মন্দা কে অনেকটাই কাটিয়ে উঠতে সাহায্য করবে|

সংস্থা রিসার্চ সংস্থান কোথায় আছো কোথায় এনা রকের হিসাবে, কলকাতা ও অন্যান্য সাতটি বড় ২.৪ এর সাত লক্ষ ফ্ল্যাট বিক্রি হয়নি| নতুন ব্যবস্থা চালু হওয়ার কারণে সংস্থার চেয়ারম্যান অনুজ পুরি ও আয়কর বিশেষজ্ঞ দের মতে কোন ফলে এসব ফ্ল্যাট বিক্রি হওয়ার নতুন আশা দেখছেন|