বাড়িতে রান্নার গ্যাস সিলিন্ডার ব্লাস্ট হলেই পাওয়া যাবে ৩০ লক্ষ টাকার জীবন বীমা

আমরা মাঝে মাঝেই শুনতে পাই রান্নাঘরে গ্যাস সিলিন্ডার ব্লাস্ট করে পরিবারের অনেক ক্ষতি হতে। কিন্তু অনেকেরই জানা নেই সিলিন্ডার ব্লাস্ট করে আগুন লাগবে ক্ষতিপূরণ পাওয়া যায় ৩০ লক্ষ টাকা অবদি পাওয়া যায়। কিন্তু তার জন্য গ্রাহকদের কিছু প্রক্রিয়ার মাধ্যমে দিয়ে যেতে হয়।

আসুন জেনে নেই কি করলে মিলবে ৩০ লক্ষ টাকার জীবন বীমা। রান্নার গ্যাস ব্লাস্ট করলে পেট্রোলিয়াম সংস্থাগুলি গ্রাহকদের সেই দুর্ঘটনা মাফিক ইন্সুরেন্স সরবরাহ করেন। রান্নার গ্যাস থেকে গ্যাস লিক করে, ব্লাস্ট করে পরিবারের বড়োসড়ো দুর্ঘটনা ঘটলে সেক্ষেত্রে ৩০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত আর্থিক সহায়তা প্রদান করেন সংস্থাগুলি। বর্তমানে, ইন্ডিয়ান অয়েল, ভারত পেট্রোলিয়াম, হিন্দুস্থান পেট্রোলিয়াম এর এলপিজি গ্রাহকদের জন্য আইসিআইসিআই নাম্বারের মাধ্যমে বীমা রয়েছে।

  • mylpg.in এর তথ্য অনুযায়ী কোন ব্যক্তি যদি এলপিজি সংগ্রহের সাথে সাথে যদি কোন দুর্ঘটনা ঘটে তবে সংস্থার তরফ থেকে তিনি ৫০ লাখ টাকা পর্যন্ত বীমা পেতে পারেন।
  • ক্ষতি সর্বোচ্চ ৩০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত গ্রাহক পেতে পারেন। ক্ষতিগ্রস্ত প্রত্যেকটি ব্যক্তিকে সর্বোচ্চ  ৬ লক্ষ টাকা পর্যন্ত ক্ষতিপূরণ দেওয়া হয়।
  • এলপিজি সিলিন্ডারের বীমা পেতে হলে গ্রাহককে অবিলম্বে নিকটতম থানা হোম এলপিজি সরবরাহকারীকে দুর্ঘটনা সম্পর্কে জানাতে হবে।

  • এই বিমানটি পরিবারের প্রত্যেকের জন্য না থাকলেও প্রত্যেকেই পাবেন। এর জন্য কোন মাসিক প্রিমিয়াম দিতে হয় না।
  • দুর্ঘটনাগ্রস্ত আহতদের চিকিৎসার প্রেসক্রিপশন, এফআইআর এবং মেডিকেল বিলের একটি জেরক্স কপি নিজের কাছে রাখুন। মৃত ব্যক্তির, মৃত্যু শংসাপত্র সম্পর্কিত পোস্ট পোস্টমর্টেম রিপোর্ট সাথে রেখে দিন।
  • বীমার টি পেতে হলে প্রথমেই নিকটতম পুলিশ স্টেশনে রিপোর্ট লেখাতে হবে। এরপরে স্থানীয় অফিস তদন্ত করে এলপিজি সরবরাহকারী সংস্থাকে রিপোর্টিং দিতে হবে।
  • এরপরে সব শংসাপত্র একসাথে করে ফাইলটি সংশ্লিষ্ট বীমা সংস্থার কাছে জমা করতে হয়। গ্রাহককে সরাসরি বীমা সংস্থার সাথে আবেদন বা কোনরকম যোগাযোগ করার