বয়াল ৭ নম্বর বুথের ছাপ্পার অভিযোগ খারিজ করে জানাল ECI |

 

বয়াল ৭ নম্বর বুথে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ভোট হয়েছে নির্বিঘ্নেই। ভোটে কোথাও কোনও বাধা পড়েনি। নিরবিচ্ছিন্নভাবে ভোটগ্রহণ হয়েছে। বিকেল ৪টে পর্যন্ত ওই বুথে ভোট পড়েছে প্রায় ৭৪ শতাংশ। ওই বুথ কেন্দ্রের বাইরে প্রায় ৩ হাজার মত লোকের জমায়েত হয়েছিল। সম্পূর্ণ নির্বিঘ্নে ভোট পড়েছে বলে কোন ধরনের আপত্তিকর অমূলক পরিস্থিতি হয়নি বলে এমনটাই জানালেন নির্বাচন কমিশন (ECI)।

 

একইসঙ্গে নির্বাচন কমিশনের জানালেন ,বয়াল ৭ নম্বর বুথে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়ের ঘেরাও হয়ে থাকা ও তার পরিপ্রেক্ষিতে ভোটে বিঘ্ন ঘটার অভিযোগ উঠেছিল। অভিযোগ পাওয়া মাত্রই জেনারেল অবজারভার হেমেন দাস ও পুলিস অবজারভার আশুতোষ রায়কে ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়। খতিয়ে দেখার জন্য বলা হয় | বিকেল ৪টে বেজে ৬ মিনিটে তাঁদের দেওয়া রিপোর্টে জানা গিয়েছে যে, ঘণ্টা দেড়েক ওই বুথে ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। ৩টে ৩৫ মিনিট নাগাদ তিনি ওই বুথ থেকে বেরিয়ে যান। ভোটদানে কোনওপ্রকার বাধা পড়েনি। বিকেল ৪টে পর্যন্ত ওই বুথের ৯৪৩ জন ভোটারের মধ্যে ৭০২ জন ভোট দিয়েছেন। সম্পূর্ণ সুস্থ ভাবে ভোট হয়েছে বলে দাবি করছেন স্থানীয় বাসিন্দারাও | এছাড়াও ওখানকার প্রশাসনিক কেন্দ্র বাহিনী আঙ্গুল কোন আপত্তি মূলক পরিস্থিতি অনুভব করেনি বলে এমনটাই জানালেন | ভোটের শেষে বিজেপি প্রার্থী অনেকটাই আশাজনক ফলাফল হবে বলে মনে করেছেন |

 

এছাড়াও কমিশন আরও জানিয়েছে যে, মুখ্যমন্ত্রীর হাতে লেখা একটি অভিযোগপত্র মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিকের মাধ্যমে আজ বিকালে নির্বাচন কমিশনে (ECI) জমা পড়েছে। অভিযোগপত্রটি ইতিমধ্যেই স্পেশাল জেনারেল অবজারভার অজয় নায়েক ও স্পেশাল পুলিস অবজারভার বিবেক দুবের কাছে পাঠানো হয়েছে বলে জানালেন । আগামিকাল সন্ধ্যে ৬টার মধ্য়ে তাঁদেরকে এঘটনায় রিপোর্ট জমা দিতে বলা হয়েছে। সম্পূর্ণ ঘটনাটি খতিয়ে দেখা হবে বলে এমনটাই জানালেন নির্বাচন কমিশন | অভিযোগের ভিত্তিতে অভিযোগটি কতটা সত্য সেটা যাচাই করা হবে |