সুন্দর এবং সুস্থ থাকতে খান বাতাবি লেবু

মেয়েরা সুন্দর থাকার জন্য অনেক কিছুই করে থাকে যেমন বিভিন্ন ধরনের ক্রিম ব্যবহার করা কিছুদিন পর পর পার্লারে যাওয়া, কিন্তু ঘরে বসেই যে সুন্দর থাকা যায় তা অনেকেই জানেনা । হ্যাঁ ঘরে বসেই ঘরোয়া পদ্ধতিতে অনেকটাই সুন্দর থাকা যায় শুধুমাত্র এই ফলটি খেলে । আসুন জেনে নিই এই ফলের উপকারিতা |

 

 

কমবেশি সকলেই আমরা এই ফলটিকে চিনি এবং এই ফলটি অনেক ধরনের রংয়ের আমরা দেখতে পাই  কোনটি সবুজ কোনটি হলুদ কোনটির লাল ,এমনকি বিভিন্ন রকমের সাধে ভরপুর । ভিটামিন C থাকায় বিভিন্ন রকমের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা থাকার সাথে সাথে ও রোগ নিরাময়ে সাহায্য করে । এই ফলটির একেক অঞ্চলে একেক রকম নাম যেমন কেউকে বলে জাম্বুরা, কেউ বলে বাদাম আবার কেউ বলে সোলোম, কিন্তু বেশিরভাগই আমরা এটাকে জাম্বুরা কিংবা বাতাবি লেবু বলেই চিনি । তো আসুন দেখা যাক এই ফলটি আমাদের কিভাবে সুন্দর এবং সুস্থ রাখতে সাহায্য করে ।

আশাকরি কমবেশি সকলের বাড়িতেই এই বাতাবি লেবু গাছ আছে কিন্তু আমরা অনেকেই জানিনা এর সঠিক উপকারিতা, আসলে বাতাবি লেবুতে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন C থাকে এটা আমাদের শরীরের ত্বকে মরা কোষ গুলিকে নির্মূল করতে সাহায্য করে এর ফলে নতুন কোষ সৃষ্টি হতে পারে ফলে ত্বক হয়ে ওঠে ঝলমলে এবং উজ্জ্বল । এছাড়াও সূর্যের প্রচুর পরিমাণ  তাপের হাত থেকে ত্বককে বাঁচাতে সাহায্য করে । কারো যদি ব্রণের সমস্যা হয় তাহলে প্রতিদিন এই বাতাবি লেবু খান দেখবেন আপনার ব্রণ ধীরে ধীরে কমে যাবে । বাতাবি লেবু খেলে আপনার ত্বকের নমনীয়তা ভালো থাকে এবং আপনি অনেকদিন যুবতী থাকবেন ।

বাতাবি লেবু শরীরে দূষিত এবং বিষাক্ত পদার্থ নিঃসরণে সাহায্য করে । এই ফলে থাকা ভিটামিন বিভিন্ন ধরনের ভাইরাস সংক্রান্ত রোগের হাত থেকেও বাঁচতে সাহায্য করে । শরীরের জলের ঘাটতি বদহজমের সমস্যা মেটায় বাতাবি লেবু ,এছাড়াও বিভিন্ন ধরনের রোগ মুকাবিলায় বাতাবি লেবু খুব ভালো কাজ করে । এই ফলে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন C ও পটাশিয়াম থাকায় দেহের রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ রাখতে বড় ভূমিকা নেই ফলে  হৃদরোগের হাত থেকে বাঁচতে অনেকটা সাহায্য করে । রক্তে কোলেস্টেরলের মাত্রাও নিয়ন্ত্রনে রাখে বাতাবি লেবু  সাহায্য করে। বাতাবি লেবুতে এসিডের পরিমাণ বেশি থাকায়  শরীরে খাদ্য পরিপাকের অত্যন্ত সহায়ক । বাতাবি লেবুর রসে অত্যন্ত পরিমাণ ভিটামিন  C থাকায় এটা ত্বকের পক্ষে অত্যন্ত উপকারী এবং সহজে শরীরের বয়সের ছাপ পড়তে দেনা । এর পাশাপাশি দেহের রক্তে দূষিত পদার্থ জমতে দেয়না বাতাবি লেবুতে থাকা বিভিন্ন রাসায়নিক দূষিত পদার্থ গুলিকে বাইরে নিঃসৃত করে এমনকি রক্তে থাকা টক্সিন বের করে দিতে সাহায্য করে । বাড়তি মেদ ঝরিয়ে ওজন কমাতেও বাতাবি লেবু সাহায্য করে, প্রচলিতভাবে দাঁত ও মাড়ির রোগ থাকলে বাতাবি লেবুর পাতা ব্যবহার করা হয় কারণ বাতাবি লেবুর রস দাঁত ও মাড়ির রোগের বিশেষভাবে উপকারী । এন্টিফাঙ্গাল হওয়ায় মাথায় খুশকি সমস্যার সমাধানে ফলটি রস বিশেষ ভূমিকা নিতে পারে ।

কয়েকটি জরুরি কথা

১ – বাতাবি লেবুতে এসিডের পরিমাণ বেশি থাকায় বাচ্চাদের বেশি পরিমাণ বাতাবি লেবু খেতে দেওয়া যাবে না কারণ বাচ্চাদের  শরীরে এসিডের পরিমাণ বেশি থাকে, তবে বিট লবণ মিশিয়ে কম মাত্রায় ছোটদের বাতাবি লেবু খেতে দেওয়া যেতে পারে ।

২ – ৪০ এর উর্ধে বাতাবি লেবু বিশেষভাবে উপকারী কারণ চল্লিশের পরে শরীরে এসিডের পরিমাণ ঘাটতি পাই বাতাবি লেবু সেই ঘাটতি মেটাতে সাহায্য করে , এবং হজমে সহায়ক হয় ।

৩ – শরীরে সুগারের পরিমাণ বেশি না থাকলে ৪০ এর উর্ধে বাতাবি লেবুর সাথে চিনি মিশিয়ে খেতে পারে ।তাই বিভিন্ন ধরনের উপকার পেতে আপনারা এই কোনটি খেতেই পারেন ।

ধন্যবাদ আজকে এটুকুই যদি আমাদের এই কথাগুলি আপনাদের ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই আমাদের এই চ্যানেলটি দেখতে থাকুন আমরা এরকম অনেক অজানা কথা আপনাদের সামনে তুলে ধরি ।