আবার ১৪ তারিখ ভারত বনধ করার হুঁশিয়ারি, চিন্তায় সরকার ও আমজনতা

 

 

রাজ্য সংবাদ: নতুন কৃষি আইন প্রত্যাহারের দাবিতে কৃষকদের আন্দোলন আরো উত্তপ্ত হয়ে উঠছে। কৃষকরা কোন প্রস্তাবেই মানতে রাজি নয়। কৃষি আইন প্রত্যাহারের দাবিতে অনড় রয়েছে কৃষকরা। এদিকে সরকারের তরফ থেকেও জানিয়ে দেয়া হয়েছে, সরকারের তরফ থেকে আর নতুন করে কোনো প্রস্তাব পাঠানো হবে না। জদিও সর্তানুযায়ী, সরকার কৃষকদের ১৫ টির মধ্যে ১২টি দাবিই ইতিমধ্যেই মেনে নেওয়া হয়েছে। সরকারের তরফ থেকে আরও জানিয়ে দেয়া হয়েছে কৃষি আইন কোনমতেই প্রত্যাহার করা হবে না। কারণ সরকার ভেবেচিন্তে কৃষকদের স্বার্থে এই আইনটি লাগু করেছে।

কিন্তু এদিক থেকে কৃষকদের দাবি কৃষি আইন প্রত্যাহার না করলে আন্দোলন থেকে পিছু হাটবে না বলে জানিয়ে দিয়েছে। আর আগামী ১৪ ই ডিসেম্বর দেশজুড়ে রেললাইনে কৃষকদের নতুন করে অবরোধ করার হুঁশিয়ারি।তিনদিন আগেই কৃষকেরা ভারত বনধের ডাক দিয়েছে। কৃষকদের ডাকা বনধ গোটা দেশজুড়ে বিজেপি বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলি সমর্থন করেছিল। আর আবারও ১৪ ই ডিসেম্বর কৃষকদের রেল অবরোধ ডাক দেওয়ার পর চিন্তা সরকারের সাধারণ আমজনতা।

রাজ্য সংবাদ

 

বর্তমান পরিস্থিতির কারণে রেল চলাচল গত কয়েক মাস ধরেই বন্ধ ছিল। আবার রেল চালু হতেই ধীরে ধীরে স্বাভাবিক ছন্দে ফিরছে মানুষের জীবনযাত্রা। এই সময় যদি কৃষকরা রেললাইন দিনের পর দিন অবরোধ করে, তাহলে যে সরকার ও সাধারণ মানুষ আবার ভোগান্তিতে পরবে। আর এর মধ্যেই কৃষকদের আন্দোলন সমর্থন করার জন্য একদল মানুষ কৃষকদের ১৪ই ডিসেম্বর ঢাকা আন্দোলন সমর্থন করে ১৪ই ডিসেম্বর ভারত অচল করার দাবি করছে।

১৪ তারিখ ভারত বনধ  করার হুঁশিয়ারি, চিন্তায় সরকার ও আমজনতা

রাজ্য সংবাদ: নতুন কৃষি আইন প্রত্যাহারের দাবিতে কৃষকদের আন্দোলন আরো উত্তপ্ত হয়ে উঠছে। কৃষকরা কোন প্রস্তাবেই মানতে রাজি নয়। কৃষি আইন প্রত্যাহারের দাবিতে অনড় রয়েছে কৃষকরা। এদিকে সরকারের তরফ থেকেও জানিয়ে দেয়া হয়েছে, সরকারের তরফ থেকে আর নতুন করে কোনো প্রস্তাব পাঠানো হবে না। জদিও সর্তানুযায়ী, সরকার কৃষকদের ১৫ টির মধ্যে ১২টি দাবিই ইতিমধ্যেই মেনে নেওয়া হয়েছে। সরকারের তরফ থেকে আরও জানিয়ে দেয়া হয়েছে কৃষি আইন কোনমতেই প্রত্যাহার করা হবে না। কারণ সরকার ভেবেচিন্তে কৃষকদের স্বার্থে এই আইনটি লাগু করেছে।

কিন্তু এদিক থেকে কৃষকদের দাবি কৃষি আইন প্রত্যাহার না করলে আন্দোলন থেকে পিছু হাটবে না বলে জানিয়ে দিয়েছে। আর আগামী ১৪ ই ডিসেম্বর দেশজুড়ে রেললাইনে কৃষকদের নতুন করে অবরোধ করার হুঁশিয়ারি।তিনদিন আগেই কৃষকেরা ভারত বনধের ডাক দিয়েছে। কৃষকদের ডাকা বনধ গোটা দেশজুড়ে বিজেপি বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলি সমর্থন করেছিল। আর আবারও ১৪ ই ডিসেম্বর কৃষকদের রেল অবরোধ ডাক দেওয়ার পর চিন্তা সরকারের সাধারণ আমজনতা।

বর্তমান পরিস্থিতির কারণে রেল চলাচল গত কয়েক মাস ধরেই বন্ধ ছিল। আবার রেল চালু হতেই ধীরে ধীরে স্বাভাবিক ছন্দে ফিরছে মানুষের জীবনযাত্রা। এই সময় যদি কৃষকরা রেললাইন দিনের পর দিন অবরোধ করে, তাহলে যে সরকার ও সাধারণ মানুষ আবার ভোগান্তিতে পরবে। আর এর মধ্যেই কৃষকদের আন্দোলন সমর্থন করার জন্য একদল মানুষ কৃষকদের ১৪ই ডিসেম্বর ঢাকা আন্দোলন সমর্থন করে ১৪ই ডিসেম্বর ভারত অচল করার দাবি করছে।