কমিশনের তরফ থেকে রাজ্যের কাছে চিঠি, অভিযুক্ত কর্তাদের বদলি করতে হবে

রাজ্য সংবাদ: ২০২১ সালের বিধানসভা ভোটের আগে নির্বাচন শান্তিপূর্ণ করার লক্ষ।যদি পুলিশ কিংবা কোন প্রশাসনের অধিকারির বিরুদ্ধে গতবারের নির্বাচনে কোনো অভিযোগ থেকে থাকে তাহলে তাকে পদ থেকে সরিয়ে দেওয়ার নির্দেশ দিল নির্বাচন কমিশন।এমনকি নির্বাচনের সময় যদি কোন অধিকারীদের বিরুদ্ধে গাফিলতির অভিযোগ থাকে, তা হলেও সেই অভিযুক্ত ব্যক্তি রেহাই পাবে না। এটা শুধু মৌখিক কোন নির্দেশ নয়, লিখিতভাবে নির্বাচন আধিকারিক CEO দপ্তরের চিঠি চলে এসেছে এমনটাই জানা যাচ্ছে।

২০২১ সালের বিধানসভা ভোটের আর বেশিদিন সময় নেই। তাই খুব শীঘ্রই নির্বাচন কমিশনার এই কাজ গুলি করতে চায়। এই রাজ্যের বিধানসভার মেয়াদ শেষ হবে ২০২১ এর ৩০ মে। যার ফলে নির্বাচন প্রক্রিয়াটি সম্পন্ন করতে হবে তার আগেই। বিভিন্ন রাজনৈতিক দলগুলি যেমন নিজেদের প্রচার চালিয়ে যাচ্ছে তেমনি নির্বাচন কমিশনও প্রস্তুতি নিচ্ছে। ভোটার তালিকার সংশোধনের কাজ চালু করে দিয়েছে বেশ কয়েকদিন আগেই। জানা গেছে আগামী ১৫ জানুয়ারি নির্বাচন কমিশন চূড়ান্ত ভোটার তালিকা প্রকাশ করবেন।

সুদীপ জৈন কিছুদিন আগেই রাজ্যে এসে পুলিশ ও প্রশাসনের অধিকারীদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন। আর এবার চিঠি এলো দিল্লি নির্বাচন সদন থেকে। চিঠিতে বলা হয়েছে যেসকল অধিকারির বিরুদ্ধে অভিযোগ রয়েছে তাদেরকে ১৫  জানুয়ারির মধ্যেই অন্য জায়গায় বদলি করতে হবে। এবং যে সকল অধিকারি নির্বাচন প্রক্রিয়ার সঙ্গে যুক্ত থাকবেন তাদের ক্ষেত্রে কি কি পদক্ষেপ নিতে হবে তাও স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন নির্বাচন কমিশন।