কেন্দ্রের প্রস্তাব বহিষ্কার করে বড় আন্দোলনের হুঁশিয়ারি দিল কৃষকেরা

 

 

রাজ্য সংবাদ: কৃষি আইন প্রত্যাহারের দাবিতে আন্দোলন আরো উত্তপ্ত হচ্ছে। বুধবার কেন্দ্র থেকে কৃষক সংগঠনগুলির কাছে একটি খসড়া পাঠানো হয়। তাতে বলা হয় নতুন কৃষি আইন নিয়ে সকল ধরনের ব্যাখ্যা দিতে প্রস্তুত কেন্দ্র। শুধু তাই নয় কৃষকদের কথা ভেবেই আইন সংশোধন করতেও রাজি। কিন্তু সেই প্রস্তাব কে ফিরিয়ে দিল বিক্ষোভকারী কৃষকরা। সেই সঙ্গে আরও জানিয়ে দিলো সংশোধন নয়,কৃষি আইন প্রত্যাহার করতে হবে সরকারকে।

কৃষক সংগঠনগুলি কেন্দ্রের দেওয়া প্রস্তাবটি সরাসরি ফিরিয়ে দেন। সঙ্গে হুঁশিয়ারি দেন, যদি তাদের দাবি না মানা হয় তাহলে আরও বৃহত্তর আন্দোলনের পথে নামবেন তারা। আগামী ১৪ ডিসেম্বরের মধ্যে নতুন কৃষি আইন বাতিল না করলে, দেশজুড়ে আন্দোলন নামার কথা জানিয়েছেন কৃষক সংগঠনগুলির।

সরকারের পক্ষ থেকে প্রস্তাব আসার আগেই কৃষক সংগঠন গুলো সকালে সিঙ্ঘু সীমানায় বৈঠক করেন। বৈঠকের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়, যতক্ষণ না কৃষি আইন প্রত্যাহার করা হবে ততক্ষণ পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যেতে হবে। এক কৃষক নেতা বলেছেন, আইনের সংশোধন নয়, আইন প্রত্যাহার চান তারা।

এর আগেই সোমবার কৃষক সংগঠনগুলির সাথে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের বৈঠক হয়। সেখানে কৃষকদের আইন সংশোধনের প্রস্তাব দেয়া হয়। কিন্তু তাতে কোন সমাধান বেরোয়নি। এর আগে কেন্দ্রের তরফ থেকে বেশ কয়েক দফায় বৈঠক করা হয়েছে কৃষক সংগঠনগুলির সাথে। প্রথমদিকে নুতন কৃষি আইন নিয়ে সরকার অনড় ছিল।কিন্তু কৃষকদের আন্দোলনের ফলে অনড় থাকায় বিষয়টি জটিল হয়ে ওঠে। পরে কেন্দ্র সরকারের তরফ থেকে বৈঠক ডাকা হয় কৃষক সংগঠনগুলির সাথে।