ধর্ষণকারীর সাজা মৃত্যুদণ্ড, মহারাষ্ট্রের মন্ত্রিসভায় পাশ, শক্তি আইন

 

রাজ্য সংবাদ: বর্তমানে প্রায় দেখা যাচ্ছে ভারতবর্ষের মহিলা ও শিশুকন্যাদের ধর্ষণ কাণ্ড। প্রতিদিনই নির্যাতিত হচ্ছে ভারতবর্ষের মা ও বোনেরা। কেন্দ্র ও রাজ্য গুলির হাতে আইন থাকা সত্ত্বেও এই অপরাধমূলক কাজ গুলি কোনমতেই বন্ধ করা যাচ্ছে না। বৃহস্পতিবার ঝাড়খণ্ডের ৩৫ বছর বয়সী এক মহিলার অভিজ্ঞতার কথা উঠে এসেছে। এরপরেই ভারতবর্ষের মহারাষ্ট্র রাজ্যের  মুখ্যমন্ত্রী সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ধর্ষণকারীর শাস্তি কেবল মৃত্যুদণ্ড। মহারাষ্ট্র সরকার মন্ত্রিসভায় বিলের অনুমোদন দিয়েছেন আগামীতে বিলটিকে উপস্থাপন করা হবে মহারাষ্ট্র বিধানসভায়।

মহারাষ্ট্রের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অনিল দেশমুখ জানিয়েছেন, আইনটির নাম, শক্তি আইন। এই আইনের অন্তর্গত যদি কেউ দোষী প্রমাণিত হয়, তাহলে দোষী ব্যক্তিকে মৃত্যুদণ্ড, আজীবন কারাদণ্ড ও জরিমানাসহ কঠোর শাস্তি দেয়া হবে।

তিনি আরো জানিয়েছেন ঘটনার ১৫ দিনের মধ্যেই পুলিশকে অভিযোগ পত্র দাখিল করতে হবে এবং শুনানি আদালতে করতে হবে। আর গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টি হলো সমস্ত বিচার শেষ করতে হবে ৩০ দিনের মধ্যেই।

তিনি আরো জানিয়েছেন যেসকল মহিলার অ্যাসিড হামলায় আক্রান্ত হন তাদেরকে সরকারের তরফ থেকে ১০ লক্ষ টাকা দেয়া হবে প্লাস্টিক সার্জারি করার জন্য। কিন্তু সেই টাকাটি নেওয়া হবে দোষীর কাছ থেকেই।

এই আইনটি আনা হচ্ছে, রাজ্যের মহিলা ও শিশুকন্যাদের সুরক্ষা দেওয়ার জন্য। ১৪ ডিসেম্বর মহারাষ্ট্র বিধানসভার শীতকালীন অধিবেশন বসবে। আর সেই বিধানসভাতে এই বিলটি তুলে ধরা হবে। উভয় পক্ষের অনুমতি পেলে এই বিলটিকে স্বাক্ষরের জন্য পাঠানো হবে রাজ্যপালের কাছে। রাজ্যপাল এতে স্বাক্ষর করলেই এটি আইনে পরিণত হবে।