গ্রেনেড ও ক্ষেপণাস্ত্র, লুকিয়ে থাকা শত্রুকে খুঁজে বের করে মারতে  সক্ষম ভারতের নতুন অর্জুন ট্যাঙ্ক

 

বর্তমানে প্রায় দিনই আমরা শুনতে পাই চীন সীমান্তে বা পাকিস্তান সীমান্তে প্রতিদিনই কিছু না কিছু নিতে চিন্তা থাকেই ভারত সরকারের কাছে। প্রতিদিনই চিন- পাকিস্তান এই দুই দেশের  বিরুদ্ধে চ্যালেঞ্জিং পরিস্তিতিতে থাকছে ভারত। প্রাই সিমান্ত পরিস্থিতি উতপ্ত হয়ে ওঠে।

এই দুই দেশ প্রতিদিনই কিছু না কিছু বিষয় নিয়ে ভারতের সীমান্তে অস্তিরতা তৈরি করেন। তাই ভারত সরকারও নিজেদের তিন সেনাবাহিনীকে শক্তিশালী ও আধুনিকরনের দিকে লক্ষ দিয়ে নতুন নতুন অস্ত্র তৈরি করে চলেছে।

 

তিন সেনাবাহিনীর কথা মাথায় রেখে ও আগামী দিনের প্রয়োজনীয়তা বিচার  করে ডি আর ডিও ব্যাটেল ট্যাংক অর্জুন  মার্ক-১ এর উন্নত সংস্করণ এর ট্রায়াল নেয়। যে ট্রায়াল পুরো নাম্বার নিয়ে পাশ করে অর্জন মার্ক-১।

 

অর্জুন ট্যাংকের এই নতুন আপডেট সংস্করণ এর মধ্যে রয়েছে অনেকগুলি নিত্যনতুন সুবিধা। অর্জুন ট্যাংকের মধ্যে অনেকগুলি ফায়ারিং করার জন্য অস্ত্র আছে। এছাড়াও এর মধ্যে যেসব অস্ত্র ব্যবহার করা হতো আপডেট করে আরো উন্নত করা হয়েছে। ফলে এর প্রযুক্তিগুলি আগের তুলনায় অনেক দ্রুত কাজ করতে সক্ষম । এই আপডেট নতুন অর্জুন ট্যাংকের কার্যক্ষমতার দেখার জন্য এদিন উপস্থিত ছিলেন সেনাবাহিনীর ডেপুটি চিফ-অফ-স্টাফ হাসাবা নিস এবং ডাইরেক্টর জেনারেল এম জি এস কাল সহ অনেক উচ্চ মিলিটারি অফিসারা। 

 

অর্জুন  ট্যাংকের  এর নতুন ভার্সন  ট্রায়েল এর মাধ্যমে নিজের যোগ্যতা প্রমাণ করেন। এছাড়াও বেশ কয়েকটি ক্ষেপণাস্ত্র সফলভাবে নিক্ষেপ করেন ও লক্ষ্যভেদ করেন। সম্প্রতি, ১৩ নভেম্বর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি জয়সালমীর সীমান্তবর্তী অঞ্চলে ল্যঙ্গাওয়ালা  পোস্টে অর্জুনকে সেনাবাহিনীতে এই নতুন সংস্করণ এর অন্তর্ভুক্ত করার ইঙ্গিত দিয়েছেন। 

 

 সামরিক সূত্রে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী, ভারতের সেনাবাহিনীতে এখনো পর্যন্ত পুরনো ভার্সনের দুটি অর্জুন ট্যাংক বাহিনী উপস্থিত আছে। তবে সেনাবাহিনীর প্রয়োজনে অর্জুন ট্রেন গুলি ডিয়ার ডিয়ার ডিয়ার তরফ থেকে অনেক আপগ্রেড করা হয়েছে। 

 

দেখা গেছে যে, এই আপডেটেড ট্যাংকের ফায়ারিং রেঞ্জ পূর্বের তুলনায় অনেক বাড়ানো হয়েছে।। এছাড়াও এই ট্রেন গুলিতে বর্তমানে এমন কিছু সুবিধা প্রদান করা হয়েছে যার মাধ্যমে অটোমেটিকলি নিজের টার্গেট কে চিহ্নিত করে ফায়ার করতে পারে। এছাড়াও শত্রু যদি চলমান ভাবে এগিয়ে আসে সে ক্ষেত্রে নিজে নিজেই টার্গেট করে আঘাত হানতে সক্ষম।