গতকাল রাতে বাগবাজারে বিধ্বংসী আগুন সম্পূর্ণ বস্তি পুড়ে ছাই হয়ে যায়। তাই পৌরসভার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে বাগবাজারের যেসকল পরিবার গৃহ হারা হয়েছেন তাদের নতুন করে ঘর বানিয়ে দিবেন।

 

রাজ্য সংবাদঃ গতকাল রাতে বাগবাজারে বিধ্বংসী আগুন সম্পূর্ণ বস্তি পুড়ে ছাই হয়ে যায়। তাই পৌরসভার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে বাগবাজারের যেসকল পরিবার গৃহ হারা হয়েছেন তাদের নতুন করে ঘর বানিয়ে দিবেন। যে সকল মানুষ গৃহহারা হয়েছেন তাদের এলাকার চারটি কমিউনিটি হল ও বাগবাজার মহিলা কলেজে থাকা ও খাওয়া-দাওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে।ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যান ফিরহাদ হাকিম। তিনি গিয়ে জানিয়েছেন বৃহস্পতিবার থেকেই নতুন ঘরের কাজ আরম্ভ করবে পৌরসভা।

বাগবাজারের মহিলা কলেজের সামনের বস্তিতে আগুন লাগে। দমকলের ২৮ টি ইঞ্জিন প্রায় তিন ঘন্টা ধরে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। আগুন নিয়ন্ত্রণে আসলেও সবকিছু ছাই হয়ে যায়। আগুনের দাপট এতটাই ছিল যে আগুনের লেলিহান শিখা পৌঁছে গিয়েছে মা সারদার বাড়ির লাগোয়া অফিসটিতে । স্থানীয়দের দাবি খবর পাওয়া সত্ত্বেও দেরি করে আসে দমকল বাহিনী। তাই সে কারণেই জনতা উপগ্রহ পুলিশের গাড়ির উপর হামলা চালায়। অগ্নিকাণ্ডের কারণে পার্শ্ববর্তী রাস্তাগুলি যানজট আরম্ভ হয়।

এত বড় দুর্ঘটনা ঘটায় মুখ্যমন্ত্রী দুঃখ প্রকাশ করেছেন। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন সাধারণ মানুষের পাশে সরকার সব সময় আছে। পৌরসভার পক্ষ থেকে ইতিমধ্যেই জানিয়ে দেয়া হয়েছে। যেসকল মানুষ গৃহহারা হয়েছেন তাদের ঘর বানিয়ে দিবে পৌরসভার তরফ থেকে।