আসছে নতুন আইন, কমবে হাতে পাওয়া স্যালারি,কি করে সংসার চালাবেন চিন্তাভাবনা শুরু করুন

 

রাজ্য সংবাদঃ ২০২১ এপ্রিল মাস থেকে বেসরকারি কর্মচারীদের জন্য সরকারের তরফ থেকে আবার একটি নতুন আইন চালু করা হচ্ছে। এর ফলে বেসরকারি চাকরিজীবীদের  Take -Home salary-এর পরিমাণ কমতে পারে। এই নতুন নিয়মের অনুযায়ী পে স্লিপ Allowances ও  Compensation ৫০ % বেশি দেখানো যাবে না। চাকুরীজীবীরা মোট যা বেতন পায় তার অন্তত ৫০% হতে হবে বেসিক পে।যার অর্থ হলো  Total pay এরঅর্ধেক বেসিক পে আর বাকিটা Allowances ওCompensation  দিতে হবে বেসরকারী সংস্থাগুলিকে।

বেশিরভাগ বেসরকারি সংস্থায়   Non  allowances পার্ট ৫০ শতাংশেরও কম রাখেন। যাতে করে ইপিএফ ও গ্রেচুয়েটি  খাতে কম টাকা দিতে হয়। এবারে নতুন নিয়মের কারণে বেসরকারি সংস্থাগুলিকে বেসিক স্যালারি বাড়াতে হবে। চাকুরীজীবিদের টেক হোম স্যালারি কম হলেও ইপিএফ ও গ্রেচুয়েটি খাতে বেশি টাকা জমা পড়বে। আর কমবে টেক্স লাইবিলিটি, কারণ সংস্থা নিজের প্রদান করা পিএফ এর ভাগ সিটিসি তে যুরে দিবেন।

এতে চাকুরীজীবির চাকরি শেষ হয়ে যাওয়ার পর এতে সুবিধা পাবেন বেশি। তবে বর্তমান পরিস্থিতিতে সমস্যায় পড়বেন চাকুরীজীবীরা। কারণ দেখা যায় বেসরকারি চাকরিজীবীদের বেতন এর অন্তত ৪৫ শতাংশ EMI সোধ করতেই চলে যায়। তাই সেলারি পরিমাণ কমে যাওয়ার কারণে। তাই ইএমআই দিতে সমস্যা হতে পারে চাকরিজীবীদের।

কারো বেতন যদি মাসে এক লক্ষ টাকা হয়, তার বেসিক স্যালারি ৩০ হাজার টাকা।Allowances ও  জুড়ে তার টোটালপেয়ে পৌঁছায় এক লক্ষে।অর্থাৎ  ১২-১২ হিসাবে তার পিএফ খাতে যাওয়ার কথা ৭২০০ টাকা। অর্থাৎ এতদিন পর্যন্ত ৯২৮০০
হয়ে আসছে তার টেক হোম। নতুন নিয়ম কার্যকরী হলে চাকুরীজীবদের বেসিক পে হয়ে যাবে ৫০ হাজার টাকা, ফলে পিএফ খাতে চলে যাবে ১২ হাজার টাকা। তখন তার টেক হোম হবে ৮৮,০০০ টাকা।আগের স্যালারি থেকে ৪,৮০০ টাকা কম।